সিলেট ০৬:৫৭ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

হবিগঞ্জে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারীর কারাদণ্ড

ক্লিক সিলেট ডেস্ক
  • প্রকাশ: ১০:৪৮:০৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ মার্চ ২০২৪
  • / ৩০ বার পড়া হয়েছে

সাজাপ্রাপ্ত আয়েশা আক্তার

হবিগঞ্জে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারীর কারাদণ্ড

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট আয়েশা আক্তার ও তার সহকারী রাকিব মিয়াকে সাতদিন করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে স্থানীয় গ্যানিংগঞ্জ বাজার এলাকা থেকে তাদের আটক করে স্থানীয় জনতা। এ সময় তাদের কাছে ভুয়া আইডি কার্ড ও ভিজিটিং কার্ড পাওয়া গেছে।

আটককৃতদের স্থানীয় ৪ নম্বর দক্ষিণ পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদে হাজির করা হয়। পরে রাতে সেখানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে তাদের সাজা দেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুল ইসলাম।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, ম্যাজিস্ট্রেট সেজে সাজাপ্রাপ্ত আয়েশা আক্তার ও তার সহকারী রাকিব মিয়া ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে টাকা হাতানোর চেষ্টা করছিল। একপর্যায়ে কয়েকজন ব্যবসায়ীর সন্দেহ হয়। পরে তাদের আটক করলে প্রতারণার বিষয়টি প্রমাণিত হয়। এরপরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তাদের পৃথকভাবে সাতদিনের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহযোগিতা করেন বানিয়াচং থানার এসআই মো. সাদরুল হাসান খান।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. সাইফুল ইসলাম জানান, প্রতারণার দায় স্বীকার করায় তাদের এ সাজা দেওয়া হয়েছে। সাজাপ্রাপ্ত আয়েশা আক্তার ও রাকিব মিয়া শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার খাদিয়া গ্রামের বাসিন্দা।

সংবাদটি ভালো লাগলে স্যোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

হবিগঞ্জে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারীর কারাদণ্ড

প্রকাশ: ১০:৪৮:০৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২০ মার্চ ২০২৪
হবিগঞ্জে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট ও সহকারীর কারাদণ্ড

হবিগঞ্জের বানিয়াচংয়ে ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট আয়েশা আক্তার ও তার সহকারী রাকিব মিয়াকে সাতদিন করে কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। মঙ্গলবার (১৯ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে স্থানীয় গ্যানিংগঞ্জ বাজার এলাকা থেকে তাদের আটক করে স্থানীয় জনতা। এ সময় তাদের কাছে ভুয়া আইডি কার্ড ও ভিজিটিং কার্ড পাওয়া গেছে।

আটককৃতদের স্থানীয় ৪ নম্বর দক্ষিণ পশ্চিম ইউনিয়ন পরিষদে হাজির করা হয়। পরে রাতে সেখানে মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে তাদের সাজা দেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট মো. সাইফুল ইসলাম।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায়, ম্যাজিস্ট্রেট সেজে সাজাপ্রাপ্ত আয়েশা আক্তার ও তার সহকারী রাকিব মিয়া ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে টাকা হাতানোর চেষ্টা করছিল। একপর্যায়ে কয়েকজন ব্যবসায়ীর সন্দেহ হয়। পরে তাদের আটক করলে প্রতারণার বিষয়টি প্রমাণিত হয়। এরপরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তাদের পৃথকভাবে সাতদিনের কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালতকে সহযোগিতা করেন বানিয়াচং থানার এসআই মো. সাদরুল হাসান খান।

সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. সাইফুল ইসলাম জানান, প্রতারণার দায় স্বীকার করায় তাদের এ সাজা দেওয়া হয়েছে। সাজাপ্রাপ্ত আয়েশা আক্তার ও রাকিব মিয়া শায়েস্তাগঞ্জ উপজেলার খাদিয়া গ্রামের বাসিন্দা।