সিলেট ০৭:১৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

রোজা অবস্থায় টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজা যাবে কি ?

ক্লিক সিলেট ডেস্ক
  • প্রকাশ: ০৭:১০:১৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪
  • / ২৩ বার পড়া হয়েছে
রোজা অবস্থায় টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজা যাবে কি ?

চলছে রমজান মাস। মহান আল্লাহ তাআলা প্রত্যেক মুমিন বান্দাকে রমজান মাসে ফরজ রোজা রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। এই রোজা পালন করার বেশকিছু নিয়ম ও বিধান রয়েছে- যা জানা জরুরি।

ইসলামি গবেষকরা বলেছেন, টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত ব্রাশ করলে রোজা ভাঙে না। কারণ, টুথপেস্ট তো কেউ খায় না। তবে ব্রাশ করার সময় সতর্ক থাকতে হবে যে পেস্ট পেটে চলে না যায়। কেউ কেউ আবার বলেন, টুথপেস্ট দিয়ে ব্রাশ করলে রোজা মকরুহ হয়ে যায়। কিন্তু ভেঙে যায়- এমন কথা কেউ বলেননি।

রমজান মাসে আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভে যা নিষেধ, তা না করার চেষ্টা করতে হবে। যেন তিনি খুশি হন। মাকরুহ হলেও আমাদের রমজান মাসে রোজা রেখে টুথপেস্ট বা দাঁতের মাজন দিয়ে দাঁত না মাজার চর্চা করতে হবে।

তবে সবচেয়ে ভালো হয়, সাহ্‌রি খাওয়ার পর পেস্ট দিয়ে দাঁত ব্রাশ করা, আবার ইফতারের পরও দাঁত ব্রাশ করা যায়। আর দিনের বেলা মিসওয়াকও ব্যবহার করা ভালো।

রাসুল (সা.) মিসওয়াক ব্যবহার করতেন। তাই মিসওয়াক করা সুন্নত। হাদিসে আছে, মিসওয়াক করে নামাজ পড়লে তা উত্তম। রাসুল (সা.) প্রতি ওয়াক্ত নামাজের আগে মিসওয়াক করতেন।

সুনানে আবু দাউদে যায়েদ বিন খালেদ আলজুহানী (রা.) বরাতে এক হাদিসে তিনি বলেন, ‘আমি রাসুলুল্লাহ (সা.) কে বলতে শুনেছি—আমার উম্মতের জন্য কষ্টের আশঙ্কা না হলে তাদের ওপর মিসওয়াককে প্রতি নামাজের জন্য ফরজ করে দিতাম।’

আল্লাহপাক রাব্বুল আলামিন আমাদের সবাইকে ভালো রাখুন, সুস্থ রাখুন। মাহে রমজানের সিয়াম সুন্দরভাবে ও পরিপূর্ণ করে পালন করার তৌফিক দান করুন।

সংবাদটি ভালো লাগলে স্যোশাল মিডিয়ায় শেয়ার করুন

রোজা অবস্থায় টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজা যাবে কি ?

প্রকাশ: ০৭:১০:১৫ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২২ মার্চ ২০২৪
রোজা অবস্থায় টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত মাজা যাবে কি ?

চলছে রমজান মাস। মহান আল্লাহ তাআলা প্রত্যেক মুমিন বান্দাকে রমজান মাসে ফরজ রোজা রাখার নির্দেশ দিয়েছেন। এই রোজা পালন করার বেশকিছু নিয়ম ও বিধান রয়েছে- যা জানা জরুরি।

ইসলামি গবেষকরা বলেছেন, টুথপেস্ট দিয়ে দাঁত ব্রাশ করলে রোজা ভাঙে না। কারণ, টুথপেস্ট তো কেউ খায় না। তবে ব্রাশ করার সময় সতর্ক থাকতে হবে যে পেস্ট পেটে চলে না যায়। কেউ কেউ আবার বলেন, টুথপেস্ট দিয়ে ব্রাশ করলে রোজা মকরুহ হয়ে যায়। কিন্তু ভেঙে যায়- এমন কথা কেউ বলেননি।

রমজান মাসে আল্লাহর সন্তুষ্টি লাভে যা নিষেধ, তা না করার চেষ্টা করতে হবে। যেন তিনি খুশি হন। মাকরুহ হলেও আমাদের রমজান মাসে রোজা রেখে টুথপেস্ট বা দাঁতের মাজন দিয়ে দাঁত না মাজার চর্চা করতে হবে।

তবে সবচেয়ে ভালো হয়, সাহ্‌রি খাওয়ার পর পেস্ট দিয়ে দাঁত ব্রাশ করা, আবার ইফতারের পরও দাঁত ব্রাশ করা যায়। আর দিনের বেলা মিসওয়াকও ব্যবহার করা ভালো।

রাসুল (সা.) মিসওয়াক ব্যবহার করতেন। তাই মিসওয়াক করা সুন্নত। হাদিসে আছে, মিসওয়াক করে নামাজ পড়লে তা উত্তম। রাসুল (সা.) প্রতি ওয়াক্ত নামাজের আগে মিসওয়াক করতেন।

সুনানে আবু দাউদে যায়েদ বিন খালেদ আলজুহানী (রা.) বরাতে এক হাদিসে তিনি বলেন, ‘আমি রাসুলুল্লাহ (সা.) কে বলতে শুনেছি—আমার উম্মতের জন্য কষ্টের আশঙ্কা না হলে তাদের ওপর মিসওয়াককে প্রতি নামাজের জন্য ফরজ করে দিতাম।’

আল্লাহপাক রাব্বুল আলামিন আমাদের সবাইকে ভালো রাখুন, সুস্থ রাখুন। মাহে রমজানের সিয়াম সুন্দরভাবে ও পরিপূর্ণ করে পালন করার তৌফিক দান করুন।